লাব্বায়েক ট্রাভেলসের ১৮ বছর পূর্তি ও বিমান বাংলাদেশ কর্তৃক অনুমোদন লাভ করায় সেলিব্রেশন পার্টি

60

ওয়ানবাংলানিউজ: পূর্ব লন্ডনের ট্রাভেলস, হজ্ব ও ওমরাহ সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান লাব্বায়েক ট্রাভেলস এর ১৮ বছর পূর্তি এবং বিমান বাংলাদেশ কর্তৃক অনুমোদন লাভ করায় সেলিব্রেশন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে গত ৩ অক্টোবর বৃহস্পতিবার। ইস্ট লন্ডন মুসলিম সেন্টারে আয়োজিত এই সভায় স্থানীয় এমপি, বিভিন্ন দেশের বিমান কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ীসহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন লাব্বায়েক ট্রাভেলস এর স্বত্ত্বাধিকারী হিফজুর রহমান চৌধুরী। এসময় তিনি তার বক্তব্যে বলেন, প্রতি বছর তার প্রতিষ্ঠান ওমরাহ ও হাজ্বে প্রায় ৩ হাজার মানুষকে সেবা প্রদান করে থাকে। তিনি বলেন, তার সফলতার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন কাস্টমারগন। তারা ভালো সেবা পেয়ে পরবর্তীতে অন্যদেরকে এই প্রতিষ্ঠানের সেবা নিতে উৎসাহিত করেছেন। তিনি তার দীর্ঘ এই পথ চলায় কাস্টমার, কমিউনিটির মানুষসহ সংশ্লিস্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
টিভি প্রেজেন্টার ফারহান মাসুদ খানের পরিচালনায় সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বেথনালগ্রীন এন্ড বো আসনের এমপি রুশনারা আলী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম, উপস্থিত ছিলেন বিমান বাংলাদেশের যুক্তরাজ্যস্থ কান্ট্রি ম্যানেজার হারুনুর রশিদ, সৌদি এয়ারলাইনের ম্যানেজার সেলস ফ্রাংক বেলি, ইউকে বাটার চেয়ারম্যান হেলাল খান, ব্যবসায়ী আনোয়ার আলী, কাউন্সিলার আববাব হোসেন, কাউন্সিলার আয়াস মিয়া, কমিউনিটি নেতা নাজির আলী, হাজী জাহেদ মিয়া, আবুল কালাম আজাদ ছোটন, মাওলানা ইমদাদুর রহমান আল মাদানী, মো: আব্দুল করিম প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রুশনারা আলী এমপি লাব্বায়েক ট্রাভেলসের কাস্টমার সার্ভিসের ভূয়শী প্রসংশা করেন। এসময় তিনি বলেন, প্রতি বছর হাজার হাজার ব্রিটিশ মুসল্লিগন হজ্জ পালন করতে সৌদিআরব যান। আগামী তার দল লেবার পার্টি ক্ষমতায় গেলে সরকারী খরছে হাজীদের স্বাস্থ সেবা দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।
আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, লাব্বায়েক ট্রাভেলস দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত কমিউনিটিতে বিশ্বস্থতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। তারা কাস্টমারদের আস্থা অর্জন করতে পেরেছে বলেই বিমানসহ বিভিন্ন দেশের বিমান সংস্থার অনুমোদিত এজেন্ট হতে পেরেছে। তারা এই প্রতিষ্ঠানের ভবিষ্যত সফলতা কামনা করেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে অতিথিরা বিশাল কেক কেটে প্রতিষ্ঠানের ১৮পূর্তি উদযাপন করেন।
সভায় পবিত্র কোরআন ও নাশিদ পরিবেশন করেন ক্বারী আব্দুল মুহিত।