ব্রেক্সিটের ভবিষ্যৎ নির্ধারণে বিশেষ অধিবেশনে বসবে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট

3296

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়ার (ব্রেক্সিট) ভবিষ্যৎ নির্ধারণে পার্লামেন্টে বিশেষ জরুরি বৈঠক ডাকা হচ্ছে। স্যাটারডে সিটিং নামে পরিচিত বিশেষ এই অধিবেশনে আগামী ১৯ অক্টোবর ব্রেক্সিটের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন দেশটির আইনপ্রণেতারা। ১৯৩৯ সালের পর থেকে এনিয়ে পঞ্চমবারের মতো আহ্বান করা হচ্ছে বিশেষ এই অধিবেশন।

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের অধিবেশন সাধারণত সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চলে। কখনও কখনও শুক্রবারেও অধিবেশন চলে। তবে এই দিনটি সাধারণত আইনপ্রণেতারা নিজেদের সংসদীয় এলাকায় নানা অনুষ্ঠানে যোগ দেয়। গত ৮০ বছরে মাত্র চারবার শনিবারে অধিবেশনে বসেছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরুর প্রেক্ষিতে প্রথমবারের মতো ১৯৩৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর স্যাটারডে সিটিং-এ বসে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট হাউস অব কমন্স। ১৯৪৯ সালের ৩০ জুলাই বসে গ্রীষ্মকালীন স্থগিত বিতর্ক ইস্যুতে। ১৯৫৬ সালের ৩ নভেম্বর বসে সুয়েজ খাল সংকট ইস্যুতে। আর সর্বশেষ ১৯৮২ সালের ৩ এপ্রিল ফকল্যান্ড দ্বীপে আগ্রাসন ইস্যুতে। আর এবার ব্রেক্সিট ইস্যুতে ১৯ অক্টোবর শনিবার বসতে যাচ্ছে এই অধিবেশন।

৩১ অক্টোবরের ব্রেক্সিট চূড়ান্ত করতে ইইউ-এর সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ এক সম্মেলনের পর শনিবারের ওই বিশেষ অধিবেশনে বসবেন আইনপ্রণেতারা। ওই অধিবেশনে ইইউ সম্মেলনে কোনও চুক্তি চূড়ান্ত হলে আইনপ্রণেতাদের তা অনুমোদনের আহ্বান জানাবেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আর চুক্তি না হলে বেশ কিছু বিকল্প উপস্থাপন করা হবে। বিশ্লেষকরা বলছেন, এসব বিকল্পের মধ্যে রয়েছে চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট বা পুরো ব্রেক্সিটই স্থগিত করে দেওয়া।