গণতান্ত্রিক সরকার না থাকায় কৃষকদের মূল্য দিতে হচ্ছে: ড. কামাল

88

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গণতান্ত্রিক ও জবাবদিহিতামূলক সরকার না থাকায় কৃষকসহ সবাইকে মূল্য দিতে হচ্ছে। বললেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। বুধবার (২২ মে) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সায়ীদ। সূচনা বক্তব্য দেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া।

ড. কামাল হোসেন বলেন, আমার কৃষক চোর নয়। গুদাম নেই তাতে কী? কৃষকের নিকট থেকে ধান কিনে তাদের গোলায় রেখে দাও— বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই নির্দেশ স্মরণ করিয়ে দিয়ে গণফোরামের পক্ষ থেকে বলা হয়, খাদ্য গুদাম না থাকার যে অজুহাত দেওয়া হচ্ছে তার পরিপ্রেক্ষিতে বঙ্গবন্ধু যে ব্যবস্থার কথা ঘোষণা করেছিলেন, সে কথা স্মরণ রাখতে চাই।

তিনি বলেন, জাতির পিতার আস্থা ছিল জনগণের ওপর, বিশ্বাস ছিল দুঃখী মানুষের ওপর। সেই আস্থা ও বিশ্বাসের ভিত্তিতেই এ কথা বলেছিলেন। আজ সরকার জনগণ হতে বিচ্ছিন্ন। তাদের ওপর আস্থা নেই, বিশ্বাস নেই। জনগণের অধিকার যারা হরণ করে, তারা জনগণের ওপর বিশ্বাস রাখবে কিভাবে?

লিখিত বক্তব্য শেষে ড. কামাল হোসেন বলেন, কৃষক রেকর্ড ভেঙে ধান উৎপাদন করেছে। তার মূল্য পাওয়া তো দূরের কথা, এখন সে বাধ্য হচ্ছে এটা পোড়াতে। এই সংকটগুলো সৃষ্টি হচ্ছে সরকারের কৃষিনীতি না থাকায়।

সরকার নিজেদের ঘোষণা মানছে না অভিযোগ করে তিনি বলেন, তারা (সরকার) ধান উৎপাদনের আগে বক্তব্য রাখে। কিন্তু উৎপাদনের পর সেই ধান কিনে রাখা এবং কৃষকের স্বার্থ রক্ষা করে না। বিষয়টি শুধু কৃষকদের ধান উৎপাদনের ক্ষেত্রে নয়, আমরা সকল ক্ষেত্রেই দেখি সরকারের দায়িত্বহীনতা। সরকার দায়িত্বহীন সরকার। তাদের যে একটা দায়িত্ব আছে কৃষকদের প্রতি, তা তারা পালন করতে ব্যর্থ হয়েছে।