ইতিহাস গড়া ম্যাচে মোসাদ্দেকের দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড

100

খেলাধুলা ডেস্ক: ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ইতিহাস গড়েছে বাংলাদেশ দল। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে পাওয়া ৫ উইকেটের এই জয়ের মধ্য দিয়ে প্রথমবার কোনো শিরোপা জিতল বাংলাদেশ। দলের জয়ে অসাধারণ ইনিংস খেলেন সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

ওপেনিংয়ে অসাধারণ ব্যাটিং করা সৌম্যর বিদায়ের পর শেষ দিকে বিপদে পড়ে যায় বাংলাদেশ। এক সময়ে মনে হয়েছিল, হেরেই যাবে টাইগাররা। পরাজয়ের সেই শঙ্কা কাটিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে রীতিমতো ব্যাটিং তাণ্ডব চালান মোসাদ্দেক।

সাত নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে থাকেন সৈকত। ইনিংসের ২২তম ওভারে নিজের ব্যাটে জাদু দেখান ময়মনসিংহের ছেলে সৈকত।

বাংলাদেশের জয়ের জন্য শেষ তিন ওভারে প্রয়োজন ছিল ২৭ রান। ফ্যাবিয়ান অ্যালানের করা ওভারের প্রথম বল রিভার্স সুইপে ছক্কা হাঁকান মোসাদ্দেক। ঠিক পরের বলেও কাভার অঞ্চল দিয়ে ফের ছক্কা হাঁকান। ওভারের তৃতীয় বলে চার। পরের বলে আবারও ছক্কা হাঁকিয়ে দলের জয় সহজ করেন সৈকত।

ওভারের পঞ্চম বলে ডাবল রান নেয়ার মধ্য দিয়ে ২০ বলে অর্ধশতক করেন। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটা বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড।

২০ বলে ফিফটি করার মধ্য দিয়ে মোহাম্মদ আশারাফুল ও আব্দুর রাজ্জাককে ছাড়িয়ে যান সৈকত।

২০০৫ সালের ২১জুন নটিংহামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মোহাম্মদ আশরাফুল ২১ বলে ফিফটির রেকর্ডটি গড়েছিলেন। ওই ম্যাচে আশরাফুল ৯৪ রান করেন। তার সেই ঐতিহাসিক ইনিংসটি ছিল ৩টি ছক্কা ও ১১টি চারে সাজানো।

২০১৩ সালের ৫ মে বুলাওয়েতে বাংলাদেশের আবদুর রাজ্জাক জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ২১ বলে ফিফটি করেছিলেন। তার ইনিংসটি ছিল ৫টি ছক্কা ও ৪টি চারে সাজানো।

শুক্রবার দলের জয়ে ২৪ বলে দুটি চার ও পাঁচটি দৃষ্টি নন্দন ছক্কায় অপরাজিত ৫২ রানের ইনিংস খেলেন মোসাদ্দেক। তার ব্যাটিং তাণ্ডবের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে ২১০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে হেসেখেলেই জয় পায় বাংলাদেশ।

এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বৃষ্টি বৃঘ্নিত ম্যাচে ২৪ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান করে।