সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে স্ট্যাটাস দিয়ে বিতর্ক জন্ম দেয়ার পর এবার আজানের ভিডিও রেকর্ডিং পোস্ট করেছেন ভারতীয় সংগীতশিল্পী সোনু নিগম

রবিবার সকালে সোনু নিগম ফজরের আজান রেকর্ডিং করে তার ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন। দুই মিনিট ২০ সেকেন্ডের আজানের ভিডিওটি পোস্ট করে সোনু লিখেছেন, ‘গুড মর্নিং ইন্ডিয়া।

গত ১৭ এপ্রিল সোমবার টুইটারে সোনু লেখেন, ‘সৃষ্টিকর্তা সবার ভালো করুন। আমি মুসলিম না, তা আমাকে আজান শুনে ঘুম থেকে উঠতে হয়। ভারতে কবে এই জোর করে চাপিয়ে দেয়া ধর্মভার শেষ হবে।

আরেকটি পোস্টে সোনু লেখেন, ‘মুহাম্মদ (সা.) যখন ইসলাম তৈরি করেছিলেন, তখন তো বিদ্যুৎ ছিল না। তাহলে এডিসনের পর থেকে কেন আমাদের এই কর্কশ শব্দ সহ্য করতে হবে?’

সোনু নিগমের ওই মন্তব্যের পরপরই ভারতজুড়ে ক্ষোভ সমালোচনা শুরু হয়। নিজেদের অনুভূতির কথা জানান বলিউডের কয়েকজন তারকা। এই বিতর্কের মধ্যেই বিবিসি হিন্দি বিভাগের সংবাদকর্মী সোনু নিগমের বাড়ির সামনে যান। পরে এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, সোনু নিগমের বাড়ি থেকে আজানের কোনো ধ্বনি শোনা যায় না

এরপর সোনু আবার টুইট করেন, ‘যে ওই ধর্মের অনুসারী না, তাকে ঘুম থেকে জাগানোর জন্য আমি কোনো মন্দির বা গুরুদুয়ারায় বিদ্যুৎ ব্যবহারে বিশ্বাসী নই।

আজান নিয়ে সোনু নিগমের স্ট্যাটাসের পর তার মাথা ন্যাড়া করে গলায় জুতার মালা পরাতে পারলেই ১০ লাখ রুপি পুরস্কার দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সাইদ শাহ আতেফ আলি আল কাদেরি নামের এক মৌলভি। ঘোষণার পর সোনু নিজেই মাথা ন্যাড়া করেন এবং ইনামের টাকা দাবি করেন

কিন্তু মৌলভি সাইদ তখন বলেন, ইনামের জন্য সোনুকে শুধু মাথা ন্যাড়া করলেই হবে না, ছেঁড়া জুতার মালা গলায় পড়ে সারা দেশ ঘুরতে হবে