মুখোমুখি হচ্ছে বিশ্বের শক্তিশালী দুই প্রেসিডেন্ট

555

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আগামী সপ্তাহে মুখোমুখি হচ্ছেন বিশ্বের দুই ক্ষমতাধর রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

আগামী ৭-৮ জুলাই জার্মানির হামবার্গে শিল্পোন্নত জি-২০ সম্মেলন বসছে। সেখানেই দুই নেতার মধ্যে সাক্ষাৎ হতে পারে বলে জানিয়েছে ক্রেমলিন ও হোয়াইট হাউস। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন দুই দেশে মুখপাত্র।

দুই ক্ষমতাধর রাষ্ট্রের শীর্ষ নেতার সাক্ষাৎ নিয়ে এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে নানা জল্পনা-কল্পনা। তবে একে ‘ভিন্ন কিছু’ ভাবছেন না ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা এইচ আর ম্যাকমাস্টার। তিনি এটাকে আর পাঁচটা সভার মতোই বিবেচনা করছেন। তিনি জানান, জি-২০ সম্মেলনের এক ফাঁকে ট্রাম্প এ রকম আরো নয়টা বৈঠক করবেন।

ম্যাকমাস্টার বলেন, ‘সত্যিকার অর্থে অন্যান্য দেশের সঙ্গে যেভাবে আলোচনা হয়, এটাও তেমনই। এতে আলাদা কিছু নেই। নেই কোনো নির্দিষ্ট আলোচ্যসূচিও। এখানে প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) যা চান, তা নিয়েই আলোচনা হবে।’

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প রাশিয়ার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক স্থাপনের কথা খোলাখুলি বললেও তাঁর দল রিপাবলিকান পার্টির আইনপ্রণেতারা তাঁকে এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলছেন।

এ সম্পর্কে ম্যাকমাস্টার বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট পরিষ্কারভাবে চাইছেন, রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রসহ সব পশ্চিমা দেশের সম্পর্কের উন্নতি হোক। পাশাপাশি তিনি রাশিয়ার অস্থিতিশীল আচরণ মোকাবিলায় যে প্রস্তুত, তা-ও পরিষ্কার করে জানিয়ে দিয়েছেন।’

এ বিষয়ে সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ আমলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা হ্যাথার কনলে সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে বলেন, ‘পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমে তাঁদের (ট্রাম্প-পুতিন) বিকৃত মুখাবয়ব বড় করে ছাপা হচ্ছে। তারা তাঁর (ট্রাম্প) পিছু লেগেই আছে। আমার পরামর্শ হলো, বৈঠককালে প্রেসিডেন্টের অঙ্গভঙ্গি বিষয়ে আরো সচেতন হওয়া উচিত।’