বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইকের সভায় দেড় শত হুইল চেয়ার প্রদানের ঘোষণা

354

এম এ জামান: প্রবাসে না থাকলে মাটির টান অনুভব করা যায় না। এই মাটির টানে প্রবাসে গড়ে উঠেছে শত শত সামাজিক সংগঠন । আমরা বড়লেখা বাসিও এর ব্যতিক্রম নয়। শিকড়ের টানে আমরা সংঘবদ্ধ হয়েছি বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকের ব্যানারে, আমাদের ঐক্যবদ্ধ ছোট্ট ছোট্ট প্রয়াস গুলো মাতৃভূমির উন্নয়নে মাইল ফলক হয়ে থাকবে। আমাদের এই সংগঠন সমুহের সাথে বিলেতের বর্তমান প্রজন্মকে সম্পৃক্ত না করতে পারলে আমাদের যেমন দ্বায়িত্ব অসমাপ্ত রবে তেমনি তারাও ভুলে যাবে মাতা পিতার জন্ম স্থানের কথা৷ সম্প্রতি বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকের এক সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। গত ৫ নভেম্বর সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় পুর্ব লন্ডনের মাইলেন্ড রোডের একটি হলে ট্রাস্টি, সদস্য ও শুভাকাঙ্খিদের নিয়ে এই সভার আয়োজন করে বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকে।

বক্তব্য রাখছেন সপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ

ফাউন্ডেশনের সভাপতি জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভা থেকে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে বড়লেখা উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে প্রায় দেড় শত হুইল চেয়ার ও কয়েকটি বাড়ি নির্মাণের ঘোষণা দেয়া হয়।

সাধারণ সম্পাদক ফয়সল রহমান ও যুগ্ম সম্পাদক কামরুল ইসলাম এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভার শুরুতেই যুগ্ম সম্পাদক কামরুল ইসলামের চাচা বড়লেখার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী “সুলভ প্রিন্টিং প্রেস ” এর স্বত্বাধিকারী ফখরুদ্দিন ফকু এবং ট্রাস্টি শওকত হোসেন এর মাতার রোগমুক্তি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন ট্রাস্টি মাওলানা সফিকুর রহমান।

উপস্থিত ট্রাস্টি ও সদস্যবৃন্দের একাংশ

দোয়া পরবর্তী আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন “সাপ্তাহিক দেশ” সম্পাদক তাইসির মাহমুদ, ফ্রান্স থেকে আগত বড়লেখা ফাউন্ডেশন এর ফ্রান্স প্রতিনিধি সাবেক জাতীয় দলের ফুটবলার লুলু আহমদ, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের ইনফরমেশন সেক্রেটারি সাংবাদিক সালেহ আহমেদ, জুড়ি কলেজের সাবেক অধ্যাপক সফিকুল হক স্বপন, ট্রেজারার সোহেল রহমান, সহ কোষাধ্যক্ষ আবুল কাশেম, স্টেন্ডিং কমিটি মেম্বার আবু রহমান, স্পেনের বাঙ্গালী কমিউনিটির প্রিয়মুখ স্টেডিং কমিটি মেম্বার নজরুল ইসলাম নজু, সাবেক কাউন্সিলর আতা রহমান, মহিউস সুন্নাহ একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা ফয়জুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা পীরজাদা হুসেন আহমদ, কেম্ব্রিজ থেকে আগত ট্রাস্টি সলিসিটর নাসির উদ্দিন, পিটারবোগ থেকে আগত ট্রাস্টি হাবিবুর রহমান হাবিব, সুজানগর ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সেক্রেটারি আজিম উদ্দিন, বড়লেখা ফ্রেন্ডস ক্লাবের সেক্রেটারি বেলাল, জয়েন্ট সেক্রেটারি সাহেদ আহমদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট কাজী নজরুল, নাজমুল ইসলাম, ব্যবসায়ী আহমদ হুসেন, মিসবা উদ্দিন , সাইফুদ্দিন সুনাম প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহিন ইকবাল, কোষাধ্যক্ষ সোহেল রহমান, সহ-কোষাধ্যক্ষ আবুল কাশেম, আবু রহমান, নজরুল ইসলাম নজু, সলিসিটর আবুল কালাম রুকন, এবং আকবর হুসেন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ।

বক্তব্য রাখছেন যুগ্ম সম্পাদক কামরুল ইসলাম

সভায় “সাপ্তাহিক দেশ” এর সম্পাদক তাইসির মাহমুদ বলেন – লন্ডনে সত্যিকার অর্থে ” বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকে” হচ্ছে একমাত্র চ্যারিটি সংগঠন যা বড়লেখার গরিব অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। আর এই মহৎ কাজকে গতিশীল করতে সকল প্রবাসী বড়লেখা বাসিকে এগিয়ে আসতে হবে। স্বাগত বক্তব্যে সহ-সভাপতি শাহিন ইকবাল বলেন আমাদের সংগঠন একটি ক্রিস্টাল ক্লিয়ার সংগঠন, এখানে সবকিছুই সবার কাছে উম্মুক্ত। কোথায়-কখন-কি হচ্ছে তা সকল ট্রাস্টির জানার অধিকার রয়েছে, রয়েছে জবাবদিহীতা।
যুগ্ম সম্পাদক কামরুল ইসলাম বলেন আমরা হুইল চেয়ার বিতরন এবং গৃহ নির্মাণ এর পাশাপাশি খুব শিগগির বড়লেখায় একটি ডায়াবেটিক হাসপাতাল এবং একটি চক্ষু হাসপাতাল চালু করার কাজ শুরু করতে যাচ্ছি। জুড়ি কলেজের সাবেক অধ্যাপক সফিকুল হক স্বপন বলেন, সমাজের কল্যাণ এর জন্য কাজ করতে হলে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়, বড়লেখা ফাউন্ডেশনের পরিচালকদের সে গুনটি রয়েছে, তাই তারা পারবেন বড়লেখার অসহায় মানুষের জন্য কিছু করতে।
সভার শেষ পর্যায়ে সভাপতি জামাল উদ্দিন সবাই কে ডিনার পর্বে অংশগ্রহনের আহবান জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।