এখনও স্রোতের মতো আসছে রোহিঙ্গারা: কাদের

21

রোহিঙ্গা স্রোতের সঙ্গে বাংলাদেশে ইয়াবা ও অস্ত্রও আসছে বলে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, মিয়ানমার থেকে এখনও স্রোতের মতো আসছে রোহিঙ্গারা। এই স্রোতের সঙ্গে ইয়াবা আসছে, অস্ত্র আসছে। এগুলো আমাদের সামাজিক বিপর্যয় ও সাংঘাতিক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে। কাজেই আমরা জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করুন। আমরা এই বোঝা সহ্য করতে পারছি না। এটি আমাদের অসহ্য হয়ে গেছে।’

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণের সময় এ কথা বলেন তিনি। গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে কয়েকটি পুলিশি চেকপোস্টে হামলার জের ধরে রোহিঙ্গা নিধনে অভিযান চালায় দেশটির সেনাবাহিনী। অভিযানে শত শত রোহিঙ্গাকে হত্যা করে তারা। এছাড়া পুড়িয়ে দেয়া হয় রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি।

নির্যাতন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশমুখী ঢল নামে রোহিঙ্গাদের। ইতোমধ্যে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এখনো এই ঢল অব্যাহত আছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘ তাদের অঙ্গীকার রক্ষা করেনি। মিয়ানমারে বসনিয়া ভুলের পুনরাবৃত্তি ঘটে গেছে।’ জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গাদের হয় মিয়ানমারে ফেরত পাঠান, না হয় অন্য কোনও দেশে স্থানান্তরিত করুন। রোহিঙ্গা জনজীবনের প্রভাব অত্যন্ত বিপজ্জনক।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সংসদ সদস্য সাইমুম সারওয়ার কমল, আশিক উল্যাহ রফিক,কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

Edit