সালমানের ঝাড়ি খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি, এরপর থানায় গিয়ে এফআইআর

385

বিনোদন ডেস্ক: গতকাল পর্যন্ত খবর ছিল সালমানের বকা-ঝকা খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বিগ বস ১১ এর প্রতিযোগী জুবের খান। নতুন খবর হলো ঐ প্রতিযোগী সালমানের বিরুদ্ধে মুম্বাইয়ের এনটপ পুলিশ স্টেশনে এফআইআর বা প্রাথমিক অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বিগ বস ১১ শুরু হয়েছে। আর শুরু হতেই জমে উঠেছে খেলা। নিয়ম অনুযায়ী প্রতি সপ্তাহের শেষে ‘উইকেন্ড কা ওয়ার’এ হাজির হয়ে প্রত্যেকের সঙ্গে কথা বলছিলেন সালমান খান। কিন্তু এবার যেন খানিক রুদ্রমূর্তি নিয়ে কথোপকথনে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। পরিস্থিতি এমন হয়েছিল যে, সালমানের বকা খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে চিত্র পরিচালক প্রতিযোগীকে। জুবের খান আপাতত হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তার চিকিৎসা চলছে।

ঘটনাটা ঠিক। ‘উইকেন্ড কা ওয়ার’এ বেশ মেজাজে ছিলেন সল্লু মিয়া। বিগ বসের ঘরে শুরু থেকে যারা নানা সমস্যা তৈরি করে চলেছেন, তাদের সঙ্গে কথা বলাই ছিল এই বিশেষ পর্বের পরিকল্পনা। একে একে জুবের খান, হিতেন তেজওয়ানি, হিনা খানদের ডেকে রীতিমতো চাচাছোলা ভাষায় আক্রমণই করছিলেন সালমান। বিগ বস ১১-র প্রতিযোগী, চিত্র পরিচালক জুবের খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল, তিনি হাউজমেট বান্দগি কার্লা এবং আরশি খানের প্রতি অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে কথা বলেছেন।

ইন্ডিয়া টাইমসের খবর, আরশিকে তিনি ‘দু’টাকার নারী বলেছেন। এমন অভিযোগ শুনেই চটে যান সালমান। অত্যন্ত কড়া ভাষায় আরশিদের প্রতি অশালীন মন্তব্য করে নিজের ভাবমূর্তিকে নষ্ট না করার আবেদন করেন তিনি।
এখানেই শেষ নয়।

জুবের দাবি করেছিলেন, তিনি দাউদ ইব্রাহিমের বোন হাসিনা পার্কারের জামাই। সালমান এ বিষয়েও জুবেরকে মিথ্যে পরিচয় না দিতেও সতর্ক করেন। এমনকী সালমানকে তিনি যেন ‘ভাই’ বলে না ডাকেন সে বিষয়েও কড়া ভাষায় নিষেধ করেন।

কিন্তু এসব বকা শোনার পর প্রথমে যেতে হলো হাসপাতালে। সেখান থেকে সোজা চলে গেলেন মুম্বাইয়ের থানায়। তবে এতোকিছুর পর এখনো সালমান কোন মন্তব্য করেন নি। খবর বলিউড লাইফ, ইন্ডিয়া টুডে।