ইউকে জমিয়তের উদ্যোগে রমজানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক লাইভ সেমিনার সম্পন্ন

91

ওয়ানবাংলানিউজ: গত ৪ এপ্রিল ২০২১ রবিবার জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের উদ্যোগে রমজানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক লাইভ সেমিনার অনুষ্টিত হয়। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের সভাপতি প্রিন্সিপাল মাওলানা শুয়াইব আহমদের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা সৈয়দ তামিম আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের প্রধান উপদেষ্টা মাওলানা শায়খ আসগর হোসাইন।

বিশেষ আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের সিনিয়র সহ সভাপতি মুফতি আব্দুল মুনতাকিম ,জামিয়া ইসলামিয়া বার্মিংহাম এর মুহাদ্দিস মাওলানা ফয়জুল হক আব্দুল আজিজ।
সেমিনারে আলোচনা পেশ করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সৌদিআরব কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলী নুর, জমিয়ত নেতা হাফিজ মাওলানা মাছুম আহমদ কৌরিয়া,কাতার জমিয়ত সেক্রেটারি মাওলানা আতিকুর রহমান,জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের সহ সভাপতি মাওলানা ফখরুদ্দীন, সহ সভাপতি মাওলানা শাহ আমিনুল ইসলাম,ট্রেজারার হাফেজ হোসাইন আহমদ বিশ্বনাথী,যুব বিষয়ক সম্পাদক মুফতি সৈয়দ রিয়াজ আহমদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক হাফিজ মাওলানা সৈয়দ হোসাইন আহমদ।

উপস্থিত ছিলেন মাওলানা হামিদুর রহমান হেলাল নিউকাসল ,জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা শামসুল আলম কিয়ামপুরী, ইউকে জমিয়তের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ নাঈম আহমদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আখতারুজ্জামান, উমান জমিয়তের সভাপতি মাওলানা রশিদ আহমদ,সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবদুল হালিম সাতবাকি, কাতার জমিয়ত নেতা মাওলানা আব্দুল মতিন জালালি, মাওলানা আব্দুশ শহীদ,
ইউকে জমিয়তের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ জিয়াউদ্দীন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা নাজমুল হাসান,সহকারী প্রচার সম্পাদক হাফিজ মাও. রশীদ আহমদ, উপদেস্টা আলহাজ সৈয়দ রাজা মিয়া, ইউকে জমিয়তের সহকারী ওয়েলফেয়ার সম্পাদক আবদুর রহমান কোরেশী, হাফিজ মাওলানা খালিদ প্রমুখ।

আলোচনায় বক্তারা বলেন শুধুমাত্র পানাহার থেকে বিরত থাকার নাম সিয়াম পালন নয় বরং নিজের নফসের ওপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আরোপ করে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর ইবাদাতের মাধ্যমে আল্লাহর সন্তষ্টি অর্জন রমজান ও সিয়ামের প্রকৃত শিক্ষা।বস্তুত এ মাস একনিষ্ঠভাবে সিয়াম ও কিয়াম পালনের মাধ্যমে আত্মশুদ্ধি, প্রশিক্ষণ, আত্মগঠন ও তাকওয়া অর্জনের মাস। তাই এই মাস আমাদের মধ্যে যখন হাজির হয় আমাদের সকলেরই উচিত এই মহিমান্বিত মাসের মর্যাদা যথাযথভাবে রক্ষা করে দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ লাভ করা। পবিত্র কালামে হাকীমে ঘোষিত হয়েছে, ‘হে ঈমানদারগণ ! তোমাদের ওপর সিয়াম পালনকে অত্যাবশ্যকীয় করা হয়েছে, যেমন তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর অত্যাবশ্যকীয় ছিল; যেন তোমরা খোদাভীতি তথা তাকওয়া অর্জন করতে পার।

আলোচনায় বক্তারা বলেন মূলত পবিত্র মাহে রমজান আত্মশুদ্ধি, আত্মগঠন, প্রশিক্ষণ ও আত্মগঠনের মাস। কারণ, এ মাসেই কঠোর সিয়াম ও কিয়াম সাধনার মাধ্যমে আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের সাথে সম্পর্ক গভীর হয় এবং নফসের দাসত্বের ওপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা যায়। মানুষ যাতে মাসব্যাপী কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে আত্মশুদ্ধি এবং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে তাকওয়া ও তাজকিয়া অজর্নের মাধ্যমে আত্মগঠন করতে পারে এই জন্যই আল্লাহ রাব্বুল আমাদের জন্য সিয়াম পালনকে অত্যাবশ্যকীয় করে দিয়েছেন। আর আল্লাহর সন্তষ্টি অর্জন করে ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তির অন্যতম ও অপরিহার্য মাধ্যমই হচ্ছে সিয়াম সাধনা। মূলত রহমত, মাগফিরাত ও জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তির মহান বারতা নিয়ে প্রতি বছরই আমাদের মাঝে ফিরে আসে পবিত্র মাহে রমজান।

সভায় জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক মহাসচিব, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মাওলানা মুফতি ওয়াক্কাস (রহঃ) ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সুনামগন্জ জেলার সহ সভাপতি,মাওলানা সৈয়দ মুনছিফ আলী (রহঃ) এর মাগফিরাত ও দরজা বুলন্দির জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা শায়খ আসগর হোসাইন।