লন্ডনে করোনায় একই দিনে আপন দুই ভাইয়ের মৃত্যু: কমিউনিটিতে শোকের ছায়া

4148

ওয়ানবাংলানিউজ: বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা, প্রবাসে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম তরুণ সংগঠক, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি আবুল লেইছ মিয়া এবং তাঁর বড় ভাই, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আকদ্দুস আলী মারা গেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন। ১৫ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে বড় ভাই আকদ্দুস আলী রয়েল লন্ডন হসপিটালে ইন্তেকাল করেনান এবং ১০ ঘন্টা পর সন্ধ্যায় নিজ ঘরে মৃত্যুবরণ করেন ছোটভাই আবুল লেইস মিয়া। তাদের এই মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে কমিউনিটিতে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে।

মরহুম আবুল লেইস লন্ডন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও এক সময় দায়িত্ব পালন করেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬৬ বছর। তিনি ৩ ছেলে ২ মেয়ে সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। তিনি নিউহ্যামে বসবাস করতেন। সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসশী গ্রামে তার আদি বাড়ী।

এদিকে মৃত্যুকালে বড় আকদ্দুস আলীর বয়স হয়েছিলো ৭৫ বছর, তিনি স্ত্রী, ৪ ছেলে ১ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।
প্রয়াত দুই ভাইয়ের জানাজা ও দাফনের বিষয়ে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।

সদ্য প্রয়াত আবুল লেইস মিয়া একাত্তরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত সংগ্রহে একজন তরুণ সংগঠক হিসেবে ব্যাপক ভূমিকা রাখেন। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত ও তহবিল সংগ্রহে মুক্তিযুদ্ধের তৎকালীন অন্যতম শীর্ষ সংগঠক গৌস খানের সাথে ঐসময় তিনি সারা ব্রিটেন চষে বেড়ান। ট্রাফালগার স্কোয়ারসহ ব্রিটেনের প্রতিটি বড় বড় ক্যাম্পেইন সমাবেশে আবুল লেইস মিয়ার ছিলো সরব উপস্থিতি। মুক্তিযুদ্ধ সংগঠনে তাঁর ব্যাপক সাংগঠনিক তৎপরতাই মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে তাঁকে তৎকালীন সিনিয়র নেতাদের নজরে নিয়ে আসে।

যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের শোক প্রকাশ
তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন যুক্তরাজ্যে আওয়ামীলীগের সভাপতি জননেতা সুলতান মাহমুদ শরীফ ও ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক নইম উদ্দিন রিয়াজ । নেতৃবৃন্দ বলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের একজন তরুন সংগঠক হিসেবে প্রবাসে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছেন এবং ৭৫ পরবর্তী জাতীয় দুঃসময়ে প্রবাসে আওয়ামীলীগের একজন দক্ষ সংগঠক হিসেবে কাজ করে গেছেন মরহুম আবুল লেইছ মিয়া একজন স্পস্টবাদি মানুষ হিসেব কমিউনিটিতে পরিচিত ছিলেন। তার মৃত্যুতে বাঙালী কমিউনিটিতে যে শুন্যতার সৃস্টি হলো তা কখনো পুরন হবার নয়।