করোনায় কঠিন সময় পার করছে হিথ্রো এয়ারপোর্ট, যাত্রী হ্রাস পেয়েছে ৭৩% পার্সেন্ট।

1082

মো: রেজাউল করিম মৃধা: করোনাভাইরস মহামারির কারনে ২০২০ সালে ব্রিটেনের সবচেয়ে বৃহৎ এবং বিশ্বের অন্যতম ব্যবস্ততম হিথ্রো এয়ারপোর্টে যাত্রী হ্রাস পেয়েছে শতকরা ৭৩% পারসেন্ট। ২০২০ সালের প্রথম থেকে করোনাভাইরসের আক্রমন শুরু হলেও মার্চ মাসে লক ডাউনের পর থেকে একের পর এক ফ্লাইট বাতিল হওয়াতে যাত্রী সংখ্যা কমতে থাকে।

পরিসংখ্যানে উল্লেখ্য করা হচ্ছে ২০২০ সালে মাত্র ২ কোটি ২১ লাখ যাত্রী হিথ্রো এয়ারপোর্ট যাতায়াত করেছে। অথচ ২০১৯ সালের চেয়ে ৫ কোটি ৯০ লাখ কম যাত্রী যাতায়াত করছেন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে শতকরা ৮৩% শতাংশ কম। এর অন্যতম কারন হিসেবে উল্লেখ্য করা হয়েছে করোনার নতুন ধরন। এই নতুন করোনার আক্রান্তের হার অত্যাধিক হওয়াতে তড়িঘড়ি করে একের পর এক ফ্লাইট বাতিল হয়। এছাড়া ইউরোপের প্রায় সব দেশ যোগাযোগ বাতিল করে এর ফলে সব চেয়ে কম সংখ্যক যাত্রী যাতায়াত করে ইতিপূর্বের সকল রেকর্ড ভজ্ঞ করেছে।

এই কঠিন সময়ের জন্য এয়ারপোর্ট এর শ্রমিক এবং কর্মকর্তাদের বেতন দিতে পারছেন না। সেই সাথে চাকরি হারাতে হয়েছে অনেককে। বেশীর ভাগ সময় মাত্র একটি রানওয়ে ব্যবহার করে খরচ হ্রাস করার পরও অনেক কঠিন সময় পার করছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে “হিথ্রো সহ অন্যান্য এয়ার পোর্ট গুলি যেভাবে কঠিন সময় পার করছে। তাতে এই খাতটি টিকে থাকাই বড় চ্যালেন্জ”। সহসায় করোনা নিয়ন্ত্রনে না এলে আগামীতে আরো কঠিন সময় আসতে পারে’”।