ভারতে কৃষকের আন্দোলনে অবরুদ্ধ দিল্লি

160

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নতুন তিনটি কৃষি সংস্কার আইন নিয়ে ভারতের হাজার হাজার কৃষক টানা তৃতীয় দিনের মত বিক্ষোভে করছেন। ভারতের রাজধানী দিল্লির উত্তরপ্রান্তে এক বিশাল এলাকা পাঞ্জাব ও হরিয়ানা থেকে আসা হাজার হাজার কৃষকের দখলে। সম্প্রতি পার্লামেন্টে পাস হওয়া তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে তারা তুমুল আন্দোলন শুরু করেছেন। বিবিসি।

দিল্লির বুকে অবস্থানরত এই হাজার হাজার কৃষক কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া আগাম আলোচনার প্রস্তাবও এদিন ফিরিয়ে দিয়েছেন। নিজেদের ট্রাক্টর ও ট্রলিতে বেশ কয়েক মাসের খাবার নিয়ে, খোলা আকাশের নিচে তাঁবু খাটিয়ে শীতের রাত কাটানোর প্রস্তুতি নিয়েই তারা রওনা দিয়েছিলেন দিল্লির পথে।

পাঞ্জাব ও হরিয়ানা থেকে আসা এই অসংখ্য কৃষক দিল্লিতে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে রাখায় রাজধানীর একটা বিস্তীর্ণ অংশে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। আরও বহু কৃষক দিল্লিতে ঢোকার চেষ্টায় সীমান্তে অপেক্ষা করছেন। কৃষকদের ৩০ টির বেশি ইউনিয়ন এবারের বিক্ষোভে অংশ নিচ্ছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ তার মাসিক রেডিও ভাষণে নতুন কৃষি আইনের পক্ষে জোরালো অবস্থান জানানোর পর পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে উঠেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ প্রস্তাব দিয়েছিলেন, কৃষকরা যদি রাস্তা ছেড়ে দিয়ে দিল্লির বুরারি ময়দানে জড়ো হন – তাহলে নির্ধারিত ৩ ডিসেম্বরের আগেও সরকার আলোচনায় বসতে প্রস্তুত।

কিন্তু আজ রবিবার কৃষক নেতারা নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে সে প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন, অন্যদিকে রাজধানীতে উত্তেজনা বাড়ছে।

ওই তিনটি আইনের একটির অধীনে সরকার ন্যায্যমূল্যে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ফসল কেনা বন্ধ করে দিতে পারবে। যার ফলে পাইকারি বাজারে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দেবে বলে আশঙ্কা কৃষকদের। তাদের ভয়, ওই আইনের ফলে ফসলের দাম নির্ধারণের ক্ষমতা বড় বড় ব্যবসায়ী ও কোম্পানির হাতে চলে যাবে, কৃষকদের হাতে কোনো ক্ষমতাই থাকবে না। তাই তারা ওই আইনগুলো বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করছে।