বিশ্ববাজারে পাউন্ডের পতন: ২০০৯ সালের পর ইউরোর কাছে পাউন্ডের হার

2291

ওয়ানবাংলানিউজ: ইউরোপ এবং বিশ্ববাজারে পাউন্ডের পতন হতে শুরু করেছে। এবার ২০০৯ সালের পর এই প্রথম ইউরোর কাছে পাউন্ড হেরে গেলো। আজ ইউরোপের বাজারে ১.০৮ ইউরোতে পাউন্ড- যার ফলে ব্রিটিশ হলিডে মেকারদের ইউরোপের হোটেল, রেস্তোরা, শপিংমলে অতিরিক্ত পাউন্ড খরচ করতে হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, গণভোটের পর ডলারের কাছেও বিশ্ববাজারে পাউন্ড ফের পতন হলো। আজকে ডলার ১.২৮ ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের মূল্য। ইইউ তাদের মাসিক সিঙ্গল মার্কেট ডাটা বুষ্টের পর বাজারে পাউন্ডের দর নামতে থাকে।

ব্রিটেনের কারেন্সি গত গণভোটের পর থেকে বাজারে উঠা-নামার মধ্যেই আছে। বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই উইক অবস্থায় চলছে। তার উপর আজকে সিঙ্গেল মার্কেটে ইউরোপ ম্যানুফ্যাকচারিং সহ এক্সপোর্ট ডাটা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি বাজারে পাউন্ডের দর পতনের অন্যতম কারণ বলে জানা গেছে। বর্তমানে সরকার আনুষ্ঠানিক ব্রেক্সিট আলোচনা এবং সেজন্য কিছু কিছু সমঝোতার ভিত্তিতে বেশ কিছু পেপার পাবলিশ করেছে। কিন্তু সেই উন্নয়নও বাজারে পাউন্ডের পতন ঠেকানো যায়নি।

পাউন্ড এর পতনে এই সময়ে বাংলাদেশী এবং পাকিস্তানীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হবেন- যেহেতু ঈদ সামনে। কোরবানী এবং ঈদের কেনাকাটার খরচ দেশে পাঠাতে অতিরিক্ত পাউন্ড দিতে হবে- ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের বাজার মান নেমে যাওয়ার ফলে।