ব্রিটিশ চলচ্চিত্র পরিচালক অ্যালান পার্কারের মৃত্যু

157

বিনোদন ডেস্ক: ফেইম, এভিটা ও বাগজি মেলোনোর মতো অসংখ্য জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের নির্মাতা অ্যালান পার্কার আর নেই।
দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ এ ব্রিটিশ পরিচালক শুক্রবার ৭৬ বছরে বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

গ্রেট ব্রিটেনের ডিরেক্টরস গিল্ডের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অ্যালেন যুক্তরাজ্য ফিল্ম কাউন্সিলের প্রথম চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ১৯৯৫ সালে সিবিই (কমান্ডার অব দ্য ব্রিটিশ এম্পায়ার) এবং ২০০২ সালে নাইটহুড খেতাবেও ভূষিত হয়েছিলেন।

প্রতিভাধর এ নির্মাতা মিডনাইট এক্সপ্রেস, মিসিসিপি বার্নিং, দ্য কমিটমেন্টস, এঞ্জেলাস অ্যাশেস ও বার্ডির মতো চলচ্চিত্রেরও পরিচালক ছিলেন।

অ্যালান পার্কারের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন এভিটা চলচ্চিত্রের সুরকার অ্যান্ড্রু লয়েড, চলচ্চিত্র প্রযোজক ডেভিড পুটনাম। শোক জানিয়েছে বাফটা, ব্রিটিশ ফিল্ম ইনস্টিটিউট, অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সও।

১৯৯৪ সালে মুক্তি পাওয়া রোড টু ওয়েলভিলে কাজ করা অভিনেতা জন কুসাক অ্যালানকে ‘অসাধারণ চলচ্চিত্র নির্মাতা’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

“স্যার অ্যালানের মৃত্যুর সংবাদে খুবই ব্যথিত, তার চলচ্চিত্র আমাদের আনন্দ দিয়েছে,” বলেছে বাফটা।

অ্যালানকে ‘বহুমুখী প্রতিভাধর’ অ্যাখ্যা দিয়েছে অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্স।

পরিচালনার জন্য কখনো অস্কার না জিতলেও অ্যালানের চলচ্চিত্রগুলো ১০টি অ্যাকাডেমি ও ১০টি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার জিতেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

১৯৪৪ সালে লন্ডনে জন্ম নেওয়া অ্যালানের ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল কপিরাইটার হিসেবে, পরে তিনি পরিচালনার দিকে মনোযোগী হন।

১৯৭৪ সালে তিনি বিবিসির চলচ্চিত্র ইভাক্যুস পরিচালনা করেন, চলচ্চিত্রটি সেরা একক অভিনয়ের জন্য বাফটা পুরস্কার জিতেছিল।

চলচ্চিত্রে অনন্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাফটা ১৯৮৪ সালে তাকে মাইকেল ব্যালকন পুরস্কারে ভূষিত করে। ২০১৩ সালে অ্যালান মর্যাদাপূর্ণ বাফটা ফেলোশিপ পান।