প্রবাসীদের জন্য বিনা শর্তে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত রেমিট্যান্স প্রণোদনা

    9135

    বাণিজ্য ডেস্ক: পাঁচ হাজার মার্কিন ডলার পর্যন্ত অথবা পাঁচ লাখ টাকার সমপরিমাণ রেমিট্যান্সের ক্ষেত্রে ২ শতাংশ প্রণোদনার অর্থ পেতে কোনো ধরনের কাগজপত্র লাগবে না। এছাড়াও পাঁচ হাজার মার্কিন ডলার অথবা পাঁচ লাখ টাকার ওপরে রেমিট্যান্স পাঠানোর ক্ষেত্রে কাগজপত্র জমা দেওয়ার সময় বাড়ানো হয়েছে। এতদিন প্রণোদনা পেতে হলে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স প্রাপক উঠানোর ১৫ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা ছিল। বর্তমানে তা বাড়িয়ে দুই মাস করা হয়েছে।

    মঙ্গলবার (১২ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

    প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পাঁচ লাখ টাকার অধিক রেমিট্যান্সের ক্ষেত্রে প্রাপক কর্তৃক ১৫ (পনের) কার্যদিবসের মধ্যে দাখিল করার বাধ্যবাধকতা শিথিল করে কাগজপত্রাদি দাখিলের সময়সীমা দুই মাস পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো। আগামী ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত এ সুবিধা বহাল থাকবে।

    প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বর্তমানে সার্বিক অবস্থায় গ্রাহকের সুবিধা বিবেচনা করে রেমিট্যান্সের ওপর প্রতিবারে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ডলার বা পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত অর্থ পাঠানোর জন্য কাগজপত্র ছাড়াই প্রণোদনা সুবিধা পাবে। এ সুবিধা ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে।

    উল্লেখ্য, দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়াতে ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে দুই শতাংশ হারে প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। এতে করে প্রবাসীরা বৈধ পথে ১০০ টাকা দেশে রেমিট্যান্স পাঠালে ১০০ টাকার সঙ্গে আরও ২ টাকা যোগ করে ১০২ টাকা দেওয়া হচ্ছে। প্রণোদনার অর্থ পরিশোধের জন্য চলতি অর্থবছরের বাজেটে তিন হাজার ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

    এর আগে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত রেমিট্যান্সে নগদ প্রণোদনা পাওয়ার জন্য কোনো কাগজপত্র লাগতো না। দেড় লাখ টাকার বেশি রেমিট্যান্স হলে নগদ প্রণোদনা পাওয়ার জন্য রেমিট্যান্স প্রদানকারী ব্যাংকের শাখায় পাসপোর্টের কপি এবং বিদেশি নিয়োগদাতার দেওয়া নিয়োগপত্রের কপি জমা দিতে হতো। এছাড়াও রেমিট্যান্স পাঠানো ব্যক্তির ব্যবসা থাকলে তাকে সেই প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স দিতে হতো।