ছাগল এমনকি পেঁপেও করোনায় আক্রান্ত!

482

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফ্রিকার দেশ তানজানিয়ায় ছাগল, এমনকি সবজি পেঁপেও নাকি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আসলে ভেজাল টেস্টিং কিটের কারণেই এমনটা হয়েছে। আর এই ঘটনার পর কিটগুলোকে ত্রুটিপূর্ণ বলে বাতিল করে দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি।

রোববার সরকারের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়, এই কিটগুলিতে ‘প্রযুক্তিগত ত্রুটি’রয়েছে।

রোববার তানজানিয়ায় উত্তর-পশ্চিমের চাটো এলাকায় এক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকালে প্রেসিডেন্ট মাগুফুলি জানিয়েছেন, এই কোভিড -১৯ টেস্টিং কিটগুলো বিদেশ থেকে আমদানি করা হয়েছিল। তবে কোন দেশ থেকে সেগুলো আনা হয়েছিল সে ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি।

প্রেসিডেন্ট মাগুফুলি জানিয়েছেন, তিনি তানজানিয়ান সিকিউরিটি ফোর্সকে কিটের মান পরীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। সিকিউরিটি ফোর্স এলোমেলোভাবে পেঁপে, ছাগল এবং একটি ভেড়াসহ বেশ কয়েকটি জিনিস ও প্রানীর ওপর পরীক্ষা চালায়। এরপর সেই সংগৃহীত নমুনাগুলি টেস্টিং ল্যাবে পাঠানো হয়। তখনও ওই নমুনার উৎস সম্পর্কে কোনও কথাই জানানো হয়নি ল্যাবকে।

অর্থাৎ, নমুনাগুলো উদ্ভিদ ও গবাদি পশুর দেহ থেকে নেয়া হলেও মানুষের নাম ও বয়স দিয়েই সেগুলো ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল। পরে ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করে দেখা যায়, ছাগল এমনকি পেঁপেরও করোনা পজিটিভ রয়েছে।

এই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন প্রেসিডেন্ট মাগুফুলি। তিনি বলেন, এর মানে হচ্ছে, এই কিটগুলো দিয়ে এর আগে এমন কিছু লোকের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল, যাদের আসলে এই রোগ হয়নি।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ পরিসংখ্যানে জানা যায়, আফ্রিকার এই দেশটিতে এ পর্যন্ত ৪৮০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা মাত্র ১৬ জন।

এখানে উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপের ও এশিয়ার দেশগুলোর তুলনায় আফ্রিকা মহাদেশে করোনা সংক্রমণ এবং প্রাণহানির সংখ্যা তুলনামূলক কম। তবে উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে, ওই অঞ্চলে করোনা পরীক্ষার মাত্রা অত্যন্ত নিম্নমানের। ফলে আক্রান্তদের সঠিক সংখ্যা পাওয়া খুবই কঠিন।