লকডাউনে তীব্র খাদ্য সংকট দক্ষিণ আফ্রিকায়, চলছে দাঙ্গা

114

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা জুড়ে শুরু হয়েছে দাঙ্গা। দেশটিতে দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। শৃঙ্খলা ফেরাতে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী। কেপটাউন উত্তাল হয়ে আছে। আফ্রিকা মহাদেশের অন্য দেশগুলোতেও মহামারি ভয়াবহ হতে শুরু করেছে।

লেসোথোও সেনা মোতায়েন করেছে। এদিকে কোভিড নাইন্টিনে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ।

মহাদেশটিতে এখন পর্যন্ত সহস্রাধিক কোভিড নাইন্টিন আক্রান্ত প্রাণ হারিয়েছেন।

আফ্রিকার ৫৪ দেশের মধ্যে ৫২টিই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ২০ হাজার। এর প্রভাব পড়েছে মানুষের জীবনেও। কেপটাউনে ক্ষুধার্ত মানুষ হামলা করেছে দোকানগুলোতে। এমনকি খাদ্যের জন্য একজন আরেকজনের ওপর ঝাপিয়ে পড়ছে। হামলার স্বীকার হচ্ছে পুলিশ। দেশটির প্রেসিডেন্টের উদ্দেশ্যে সেখানকার এক সম্প্রদায়ের নেতা একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। এতে তিনি বলেন, মিস্টার প্রেসিডেন্ট আমরা খাদ্য সংকটে আছি। এখানে এখন যা চলছে তা যুদ্ধ ছাড়া কিছুই নয়। এর আগে দেশটিতে ৫ সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করা হয়। দীর্ঘ ৩৫ দিনের লকডাউনের কারণে দেশটিতে শুরু হয়েছে তীব্র খাদ্য সংকট।

কিছু মানুষকে খাবার দিতে অনেকেই নিজ উদ্যোগে ত্রান বিতরণ করছেন সেখানে। তবে এসব ত্রানের সামনে লাইন বড় হচ্ছে প্রতিদিন। ফলে বিতরকরা এখন বেছে বেছে শিশু ও প্রতিবন্ধীদের খাদ্য দিচ্ছে। তবে অনেকেই উগ্র আচরণ করছে। জোর করে খাবার ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে। হামলা হচ্ছে সরকারের খাদ্য পরিবহণগুলোতেও। তাদেরকে বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশের ওপর হামলা করে শত শত মানুষ। ফলে এখন শহরজুরে ব্যারিকেড দিয়ে রেখেছে পুলিশ। বাধ্য হয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর রাবার বুলেট ছুরেছে পুলিশ। ব্যবহার করা হয়েছে টিয়ার গ্যাস।