জ্ঞান গরিমায় সিলেটের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখতে হবে —গোলাপগঞ্জে ড. ফরাস উদ্দিন

175

ওয়ানবাংলানিউজ: বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর ড. মোহাম্মদ ফরাস উদ্দিন বলেছেন, আমাদের দেশের জনসংখ্যার ৫ কোটি লোক যাদের বয়স ৩০ বছরের মধ্যে। তারা আমাদের প্রাণ, তাদেরকে কাজে লাগিয়ে আমরা অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারি। তাদেরকে মানসম্পদ হিসাবে গড়ে তুলতে প্রযুক্তিগত শিক্ষা দেয়া সম্ভব হলে তারাই হবে আমার মূলধন। বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। আমাদের মাথাপিছু আয় যেখানে ১৯শ মার্কিন ডলার, সেখানে পাকিস্তানের মাথাপিছু আয় হচ্ছে ১৬শ মার্কিন ডলার। আমাদের গড় প্রবৃদ্ধির হার যখন ৮.১৫%, তখন পাকিস্তানের প্রবৃদ্ধির হার ৪%। যারা দেশ স্বাধীনের ৪৮ বছর পর এখনও বুকে পাকিস্তানকে লালন করছেন তাদেরকে সাবধান থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে আমরা পৃথিবীর একটি স্বাধীন জাতি হিসাবে আজ উন্নতির দিকে অগ্রসর হচ্ছি।
গোলাপগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আতহারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্ণী পুণর্মিলনী-২০২০ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশের মাটি ও মানুষের প্রতি ভালবাসা আছে বলেই আজ অনেকেই যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র থেকে অনুষ্ঠানে মিলিত হয়েছেন। তাদের অর্থ আমাদের জাতীয় অগ্রগতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তিনি সিলেটের শিল্পায়নে প্রবাসীদেরকে বেশি করে বিনিয়োগ করার আহবান জানান।
ড. মোহাম্মদ ফরাস উদ্দিন সিলেটের সুদীর্ঘ কালের গৌরব গাঁথা ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, ব্রিটিশ ও পরবর্তী সময়ে ১৭টি জেলার মধ্যে তিনটি জেলা শিক্ষা ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছিল। তাদের মধ্যে একটি ছিল বৃহত্তর সিলেট জেলা। আমি আমার জীবনের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ সিলেটের অতিবাহিত করার সুযোগ পেয়েছিলাম বলে নিজেকে ধন্য মনে করছি। সিলেট ব্রিটিশ আমল থেকে পড়ালেখা, জ্ঞান গরিমা সবদিক দিয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছিল। আমাদেরকে আগামীতেও এ শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখতে হবে।
গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আতহারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ২ দিন ব্যাপী পুণর্মিলনী অনুষ্ঠানের সমাপণী দিন ছিল গতকাল শনিবার। বেলা ১২টা থেকে হাজারো প্রাক্তন শিক্ষার্থী আর শুভাকাঙ্খীর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানস্থল ড্রিমল্যান্ড অ্যামিউজম্যান্ট এন্ড ওয়াটার পার্ক প্রাণবন্ত হয়ে উঠে। উদযাপন পরিষদের সভাপতি গোলাপগঞ্জ এমসি একাডেমীর সাবেক প্রিন্সিপাল মনসুর আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে, সিলেটের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আমিনুল ইসলাম লিটনের সঞ্চালনায় ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী মানবাধিকার কর্মী সুজন খানের পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সমাপণী অনুষ্ঠানে কার্যক্রম শুরু হয়। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার বদরুল ইসলাম সুয়েব, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ আব্দুশ শহীদ, প্রাক্তন শিক্ষার্থী বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঞ্জুর শাফি এলিম চৌধুরী, ফুলবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ফয়ছল। বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন শিক্ষার্থী এডভোকেট শাহ আশরাফুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মো: দিলওয়ার হুসেন, সাংবাদিক মো: আব্দুর মুনিম জাহেদী ক্যারল, এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, এডভোকেট দেলওয়ার হোসেন দিলু, এডভোকেট কবির আহমদ বাবর, যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা ও সাবেক বিশ্ব ক্যারাম চ্যাম্পিয়ান আব্দুর রহমান খান সুজা, ব্যাংকার আব্দুল ওয়াহাব জোয়াদ্দার মছুফ, আব্দুল হানিফ খাঁন, যুক্তরাজ্য প্রবাসী মাসুদ আহমদ জোয়াদ্দার, হানিফুজ্জামান জোয়াদ্দার, সেলিম আহমদ, আব্দুল হাফিজ জোয়াদ্দার, মলয় দত্ত মিঠু, বেলাল আহমদ, আবুল কাশেম সেবুল, মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মোহাম্মদ ছানা মিয়া, উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান চৌধুরী, মোক্তফা আনোয়ারুল মুমিন, আতাউর রহমান। প্রাক্তন ছাত্র যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মো: দিলওয়ার হুসেনএ ক্রেস্ট দিয়ে বিশেষ সম্মাননা দেয়া হয় l অনুষ্ঠানের শুরুতে শোক প্রস্তাব পেশ করেন উদযাপন কমিটির যুগ্ম সদস্য সচিব জাফরান জামিল। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব বিদ্যুৎ জ্যোতি পুরকায়স্থ। এদিকে গত শুক্রবার প্রাক্তন শিক্ষার্থী পুণর্মিলনী-২০২০ এর প্রথম দিনে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়।